সৈয়দপুর ০৬:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খানসামায় অপো রানী হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩১:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৪ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ইপিজেড কর্মী অপো রানী রায়ের (২৩) ধর্ষণ করে হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে তৃতীয়বারের মতো মানববন্ধন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর ) সকাল সাড়ে  ১১টায় খানসামা উপজেলার ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন পরিষদের  হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আয়োজনে  কাচিনীয়া বাজারের শহীদ মিনার চত্ত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত মানববন্ধনের বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হিন্দু  বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান পরিষদের ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন শাখা সাধারণ সম্পাদক, দিলিপ বিশ্বাস, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৬নং ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ধীমান চন্দ্র রায়, সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম (পুলিশ), বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ৩নং আঙ্গারপাড়া ইউপি’র যুগ্ম আহব্বায়ক ইব্রাহীম খলিল, বাংলাদেশ হিন্দু  বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান পরিষদের ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন শাখা সদস্য নারায়ন চন্দ্র রায়সহ প্রমুখ। এছাড়াও অপো রানী পরিবারেরপক্ষে তার কাকা জিতেন্দ্র নাথ রায়।

এ সময় বক্তারা বলেন, অপো রানী হত্যাকাণ্ডের আজ ৬১ দিন অতিবাহিত হলেও খানসামা থানা পুলিশ এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হননি বরং তারা এটাকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন পায়তারা চালাচ্ছেন। এটা খানসামা উপজেলাবাসীর জন্য অত্যান্ত লজ্জাজনক। আমরা আজকে এই মানববন্ধন থেকে স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই আপনারা এই হত্যাকান্ডকে ধামাচাপা না দিয়ে  হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করেন। আর তা না হলে আমরা আরো কঠোর থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা দিতে বাধ্য হব । এছাড়াও মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ ফাঁসির দাবী জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পথে ধান ক্ষেতে দুই কন্যা সন্তানের জননী অপো রানী রায়ের লাশ বিবস্ত্র অবস্থায় পথচারীরা দেখতে পায়। পাশেই নিহতের সাথে ১০ বছরের মেয়ে বিপাশা রাণী রায়কে অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পায় ৷ পরে পথচারীরা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। আর অজ্ঞান শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


খানসামায় অপো রানী হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ১২:৩১:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ইপিজেড কর্মী অপো রানী রায়ের (২৩) ধর্ষণ করে হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে তৃতীয়বারের মতো মানববন্ধন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর ) সকাল সাড়ে  ১১টায় খানসামা উপজেলার ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন পরিষদের  হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আয়োজনে  কাচিনীয়া বাজারের শহীদ মিনার চত্ত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত মানববন্ধনের বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হিন্দু  বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান পরিষদের ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন শাখা সাধারণ সম্পাদক, দিলিপ বিশ্বাস, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৬নং ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ধীমান চন্দ্র রায়, সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম (পুলিশ), বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ৩নং আঙ্গারপাড়া ইউপি’র যুগ্ম আহব্বায়ক ইব্রাহীম খলিল, বাংলাদেশ হিন্দু  বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান পরিষদের ৫নং ভাবকী ইউনিয়ন শাখা সদস্য নারায়ন চন্দ্র রায়সহ প্রমুখ। এছাড়াও অপো রানী পরিবারেরপক্ষে তার কাকা জিতেন্দ্র নাথ রায়।

এ সময় বক্তারা বলেন, অপো রানী হত্যাকাণ্ডের আজ ৬১ দিন অতিবাহিত হলেও খানসামা থানা পুলিশ এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হননি বরং তারা এটাকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন পায়তারা চালাচ্ছেন। এটা খানসামা উপজেলাবাসীর জন্য অত্যান্ত লজ্জাজনক। আমরা আজকে এই মানববন্ধন থেকে স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই আপনারা এই হত্যাকান্ডকে ধামাচাপা না দিয়ে  হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করেন। আর তা না হলে আমরা আরো কঠোর থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা দিতে বাধ্য হব । এছাড়াও মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ ফাঁসির দাবী জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পথে ধান ক্ষেতে দুই কন্যা সন্তানের জননী অপো রানী রায়ের লাশ বিবস্ত্র অবস্থায় পথচারীরা দেখতে পায়। পাশেই নিহতের সাথে ১০ বছরের মেয়ে বিপাশা রাণী রায়কে অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পায় ৷ পরে পথচারীরা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। আর অজ্ঞান শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।