সৈয়দপুর ১২:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাগল চুরি করে পালানোর সময় গণধোলাই খেলেন যুবলীগ নেতা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৮:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২ ১৫ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: মোটর সাইকেলযোগে ছাগল চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের এক যুবলীগ নেতাসহ দুইজনকে গণপিটুনি দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

রবিবার (২ অক্টোবর) দুপুরে পার্শ্ববর্তী রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্থানীয় যুবলীগ নেতা হাবীবুল্লাহ হাবীব সহ দুইজনকে গণপিটুনি দেওয়ার একটি ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে গেলে মুহুর্তে তা ভাইরাল হয়।

যুবলীগ নেতা হাবীব পৌর শহরের গুয়াগাঁও মহল্লার জবাইদুরের ছেলে। তিনি নিজেকে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। অপর জনের নাম মিরাজুল ইসলাম। তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার তাজপুর গ্রামের মোহাম্মদ কোম্পানীর ছেলে।

জানা গেছে, তারা সদর উপজেলার মহেশপুর গ্রামের একটি আম বাগান থেকে ছাগল চুরি করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার হাতে ধরা পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী সলেমান আলী বলেন, নেকমরদ বাজারে তাদেরকে গণপিটুনি দেওয়ার সময় আমি কাছে গিয়ে তাদের জিজ্ঞেস করা হলে তারা বলেন-পিকনিক খাওয়ার জন্য ছাগল চুরি করেছেন। আমি অবাক হয়েছি। আবার নিজেকে আওয়ামী লীগের নেতা দাবি করছেন।

ছাগল মালিকের কন্যা সুমাইয়া জানান, মহেশপুরের একটি আম বাগান থেকে তাদের একটি খাশি ছাগল মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল ওই দুই যুবক। এ সময় প্রতিবেশী এক ভাইসহ তিনি মোটরসাইকেলে করে পেছন থেকে তাদের ধাওয়া করেন এবং নেকমরদ বাজার এলাকায় জনতার সহায়তায় তাদের ধরে ফেলেন। এ সময় জনতা তাদের গণপিটুনি দেয়।

এ বিষয়ে হাবিবুল্লাহ হাবীবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল বাবু বলেন, হাবীব ধর্মবিষয়ক সম্পাদক নয়। সাধারণ সদস্য। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


ছাগল চুরি করে পালানোর সময় গণধোলাই খেলেন যুবলীগ নেতা

আপডেট সময় : ০১:৪৮:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: মোটর সাইকেলযোগে ছাগল চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের এক যুবলীগ নেতাসহ দুইজনকে গণপিটুনি দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

রবিবার (২ অক্টোবর) দুপুরে পার্শ্ববর্তী রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্থানীয় যুবলীগ নেতা হাবীবুল্লাহ হাবীব সহ দুইজনকে গণপিটুনি দেওয়ার একটি ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে গেলে মুহুর্তে তা ভাইরাল হয়।

যুবলীগ নেতা হাবীব পৌর শহরের গুয়াগাঁও মহল্লার জবাইদুরের ছেলে। তিনি নিজেকে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। অপর জনের নাম মিরাজুল ইসলাম। তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার তাজপুর গ্রামের মোহাম্মদ কোম্পানীর ছেলে।

জানা গেছে, তারা সদর উপজেলার মহেশপুর গ্রামের একটি আম বাগান থেকে ছাগল চুরি করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার হাতে ধরা পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী সলেমান আলী বলেন, নেকমরদ বাজারে তাদেরকে গণপিটুনি দেওয়ার সময় আমি কাছে গিয়ে তাদের জিজ্ঞেস করা হলে তারা বলেন-পিকনিক খাওয়ার জন্য ছাগল চুরি করেছেন। আমি অবাক হয়েছি। আবার নিজেকে আওয়ামী লীগের নেতা দাবি করছেন।

ছাগল মালিকের কন্যা সুমাইয়া জানান, মহেশপুরের একটি আম বাগান থেকে তাদের একটি খাশি ছাগল মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল ওই দুই যুবক। এ সময় প্রতিবেশী এক ভাইসহ তিনি মোটরসাইকেলে করে পেছন থেকে তাদের ধাওয়া করেন এবং নেকমরদ বাজার এলাকায় জনতার সহায়তায় তাদের ধরে ফেলেন। এ সময় জনতা তাদের গণপিটুনি দেয়।

এ বিষয়ে হাবিবুল্লাহ হাবীবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল বাবু বলেন, হাবীব ধর্মবিষয়ক সম্পাদক নয়। সাধারণ সদস্য। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।