সৈয়দপুর ০৫:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডোমারে ঐতিহ্যবাহী ‘শাহ্ কলন্দর মেলা’ অনুষ্ঠিত

মো: সাহিদুল ইসলাম
  • আপডেট সময় : ০৫:১৬:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪ ৭ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ সাহিদুল ইসলাম, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ ইসলাম ধর্ম প্রচারের জন্য সুদূর দিল্লি থেকে নীলফামারীর ডোমারে আসা বিশিষ্ট অলিয়ে কামেল হযরত শাহ্ কলন্দর (রহ.)-এর মাজার শরীফের পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে মাজার জিয়ারত, মান্নত গ্রহণ, তোবারক বিতরণ ও ঐতিহ্যবাহী শাহ্ কলন্দর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১০ই মে) সকাল ৬টা থেকে উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের ধনীপাড়ায় শাহ্ কলন্দর দরগাহ্ শরীফ প্রাঙ্গনে বিশিষ্ট অলিয়ে কামেল হযরত শাহ্ কলন্দর (রহ.)-এর রুহের মাগফিরাত কামনায় পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে তাঁর মাজার জিয়ারত করেন অসংখ্য ভক্ত ও সাধারণ মুসল্লিরা। এসময় ভক্তদের আনা মান্নত গ্রহণ এবং তোবারক বিতরণ করা হয়।

এছাড়া পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে মাজার প্রাঙ্গনে তিনদিন ব্যাপী ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলায় হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটেছে। দোকানিরা বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের পসরা সাজিয়ে বসেছেন। শিশুদের জন্য নাগরদোলা, চরকি, যান্ত্রিক সাম্পান নৌকা বসানো হয়েছে।

মেলায় সন্দেশ, বাতাসা, জিলাপি, নিমকি, খাজা সহ বিভিন্ন মিষ্টান্ন দ্রব্যের দোকানে আগত দর্শনার্থীদের ভিড় পরিলক্ষিত হয়েছে। অন্যদিকে কাঠের তৈরি খাট-পালঙ্ক, আলমারি, টেবিল-চেয়ার, ড্রেসিং টেবিল সহ লোহার তৈরি নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিক্রয় করছেন দোকানিরা। কয়েক শতাধিক দোকান নিয়ে বৈশাখের শেষলগ্নে একপ্রকার বৈশাখী মেলায় পরিণত হয়েছে ঐতিহ্যবাহী শাহ্ কলন্দর মেলা।

হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ) এর মাজার ও দরবার শরীফ কর্তৃপক্ষ সুত্রে জানা যায়, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পবিত্র ওরশ শরীফ ও ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বাংলা বছরের ২৬ ও ২৭ বৈশাখ তারিখে হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ) এর পবিত্র ওরশ শরীফ পালন করা হয়।

মেলায় ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের সাথে কথা হলে তারা জানান, প্রতিবছর কলন্দর মেলায় ঘুরতে আসেন তারা। গ্রামীণ জনপদের বৈশাখী মেলার আয়োজন কমে যাওয়ায় ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলাকে প্রাধান্য দেন উত্তর জনপদের বাঙালিরা। এখানে নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিসপত্র কেনাকাটা সহ পরিচিতজনদের সাথে মিলনমেলায় মেতে ওঠা হয়।

মেলাকে ঘিরে স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক আনন্দ বিরাজ করে। স্থানীয়রা জানান, বহুবছর আগে থেকে ২৭শে বৈশাখে সোনারায়ের প্রত্যেক বাড়িতে উৎসবের আমেজ বিরাজ করে। দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয়স্বজন ও পরিচিতজনেরা বেড়াতে আসেন। সবাই মিলে একত্রিত হয়ে আনন্দের ধারা প্রবাহিত হয়। উৎসবের মতোই পালন করা হয় বৈশাখের শেষ সপ্তাহের এই দিনটিকে।

জানা যায়, গত ৯ই মে (বৃহস্পতিবার) বাদ আসর মিলাদ মাহফিলের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া পবিত্র ওরশ শরীফের আনুষ্ঠানিকতা ১০ই মে সন্ধ্যা ৭টার পর শেষ হলেও শনিবার (১১ই মে) অব্ধি মেলাটি চলছে।

উল্লেখ্য, সূদুর দিল্লি থেকে ইসলাম প্রচারের জন্য তৎকালীন রংপুর জেলার ডোমার স্টেশনের নিকটবর্তী সোনারায় এলাকার বন-জঙ্গলে আস্তানা গড়ে তুলেন হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ)। তার অলৌকিক ক্ষমতায় ধীরে ধীরে অসংখ্য অমুসলিম ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। আধ্যাত্মিক এই অলিয়ে কামেলের পরলোকগমনের দিনটিতে বহুবছর যাবৎ ওরশ শরীফ পালন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


ডোমারে ঐতিহ্যবাহী ‘শাহ্ কলন্দর মেলা’ অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৫:১৬:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪

মোঃ সাহিদুল ইসলাম, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ ইসলাম ধর্ম প্রচারের জন্য সুদূর দিল্লি থেকে নীলফামারীর ডোমারে আসা বিশিষ্ট অলিয়ে কামেল হযরত শাহ্ কলন্দর (রহ.)-এর মাজার শরীফের পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে মাজার জিয়ারত, মান্নত গ্রহণ, তোবারক বিতরণ ও ঐতিহ্যবাহী শাহ্ কলন্দর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১০ই মে) সকাল ৬টা থেকে উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের ধনীপাড়ায় শাহ্ কলন্দর দরগাহ্ শরীফ প্রাঙ্গনে বিশিষ্ট অলিয়ে কামেল হযরত শাহ্ কলন্দর (রহ.)-এর রুহের মাগফিরাত কামনায় পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে তাঁর মাজার জিয়ারত করেন অসংখ্য ভক্ত ও সাধারণ মুসল্লিরা। এসময় ভক্তদের আনা মান্নত গ্রহণ এবং তোবারক বিতরণ করা হয়।

এছাড়া পবিত্র ওরশ মাহফিল উপলক্ষ্যে মাজার প্রাঙ্গনে তিনদিন ব্যাপী ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলায় হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটেছে। দোকানিরা বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের পসরা সাজিয়ে বসেছেন। শিশুদের জন্য নাগরদোলা, চরকি, যান্ত্রিক সাম্পান নৌকা বসানো হয়েছে।

মেলায় সন্দেশ, বাতাসা, জিলাপি, নিমকি, খাজা সহ বিভিন্ন মিষ্টান্ন দ্রব্যের দোকানে আগত দর্শনার্থীদের ভিড় পরিলক্ষিত হয়েছে। অন্যদিকে কাঠের তৈরি খাট-পালঙ্ক, আলমারি, টেবিল-চেয়ার, ড্রেসিং টেবিল সহ লোহার তৈরি নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিক্রয় করছেন দোকানিরা। কয়েক শতাধিক দোকান নিয়ে বৈশাখের শেষলগ্নে একপ্রকার বৈশাখী মেলায় পরিণত হয়েছে ঐতিহ্যবাহী শাহ্ কলন্দর মেলা।

হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ) এর মাজার ও দরবার শরীফ কর্তৃপক্ষ সুত্রে জানা যায়, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পবিত্র ওরশ শরীফ ও ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বাংলা বছরের ২৬ ও ২৭ বৈশাখ তারিখে হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ) এর পবিত্র ওরশ শরীফ পালন করা হয়।

মেলায় ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের সাথে কথা হলে তারা জানান, প্রতিবছর কলন্দর মেলায় ঘুরতে আসেন তারা। গ্রামীণ জনপদের বৈশাখী মেলার আয়োজন কমে যাওয়ায় ঐতিহ্যবাহী কলন্দর মেলাকে প্রাধান্য দেন উত্তর জনপদের বাঙালিরা। এখানে নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিসপত্র কেনাকাটা সহ পরিচিতজনদের সাথে মিলনমেলায় মেতে ওঠা হয়।

মেলাকে ঘিরে স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক আনন্দ বিরাজ করে। স্থানীয়রা জানান, বহুবছর আগে থেকে ২৭শে বৈশাখে সোনারায়ের প্রত্যেক বাড়িতে উৎসবের আমেজ বিরাজ করে। দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয়স্বজন ও পরিচিতজনেরা বেড়াতে আসেন। সবাই মিলে একত্রিত হয়ে আনন্দের ধারা প্রবাহিত হয়। উৎসবের মতোই পালন করা হয় বৈশাখের শেষ সপ্তাহের এই দিনটিকে।

জানা যায়, গত ৯ই মে (বৃহস্পতিবার) বাদ আসর মিলাদ মাহফিলের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া পবিত্র ওরশ শরীফের আনুষ্ঠানিকতা ১০ই মে সন্ধ্যা ৭টার পর শেষ হলেও শনিবার (১১ই মে) অব্ধি মেলাটি চলছে।

উল্লেখ্য, সূদুর দিল্লি থেকে ইসলাম প্রচারের জন্য তৎকালীন রংপুর জেলার ডোমার স্টেশনের নিকটবর্তী সোনারায় এলাকার বন-জঙ্গলে আস্তানা গড়ে তুলেন হযরত শাহ্ কলন্দর (রহঃ)। তার অলৌকিক ক্ষমতায় ধীরে ধীরে অসংখ্য অমুসলিম ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। আধ্যাত্মিক এই অলিয়ে কামেলের পরলোকগমনের দিনটিতে বহুবছর যাবৎ ওরশ শরীফ পালন করা হয়।