সৈয়দপুর ০৭:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কিশোরগঞ্জে অল্প বৃষ্টিতেই জমছে পানি বাড়ছে জনদুর্ভোগ

মো: মারুফ হোসেন লিওন
  • আপডেট সময় : ০৬:১৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ জুন ২০২৩ ৩৪ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ মারুফ হোসেন লিয়ন, স্টাফ রিপোর্টার: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে অল্প সময়ের বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে উপজেলার অধিকাংশ সড়ক। বৃষ্টি থেমে গেলেও সরছে না পানি। একদিকে অধিকাংশ সড়ক খানাখন্দ, অন্যদিকে বৃষ্টিতে হাটু পানি জমে থাকায় উপজেলাবাসীর চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

গতকাল রবিবার রাতে ও সোমবার সকালে বৃষ্টি হয় উপজেলাজুড়ে। পরে বৃষ্টি থামলেও বিভিন্ন জায়গায় বেশির ভাগ সড়কে হাঁটুপানি জমে। বৃষ্টিতে সাময়িক স্বস্তির বদলে ভোগান্তিই মুখ্য হয়ে ওঠে।থানা মোড় থেকে উপজেলা পরিষদ যেতে ভোগান্তিতে পোহাতে হচ্ছে যানবাহন ও পথচারীদের। ওয়ালটন প্লাজা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে রাস্তায় জমেছে পানি। স্থানীয়দের অভিযোগ রাস্তায় ড্রেন না থাকায় এমন দুর্ভোগের সৃষ্টি হচ্ছে। এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, পানি নিষ্কাশনের কোন ব‍্যবস্থা না থাকায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। সম্প্রতি প্রধান ড্রেন পরিষ্কার করার কিছুদিনের মধ্যে আবার তা আগের অবস্থায় ফিরে গেছে। এ ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ড্রেনগুলো পরিষ্কার না করায় তা ভরাট হয়ে পানি নিষ্কাশনের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। চলাফেরায় ভোগান্তির সঙ্গে পচা, দুর্গন্ধযুক্ত পানি বাড়াচ্ছে রোগ বালাইয়ের শঙ্কা। বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হলেও পানি নিস্কাশনের এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে কিশোরীগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজের মূল ফটকের সামনে পানি জমে থাকতে দেখা যায়।এতে বিপাকে পড়েছে কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ উপজেলা হতে বড়ভিটা যাতায়াতকৃত যানবাহন সহ পথচারীরা।

কিশোরগঞ্জ সরকারী ডিগ্রী কলেজের অধ‍্যক্ষ আব্দুর রউফ বলেন, কলেজ যাতায়াতের রাস্তা কয়েকবার ভেঙ্গে গিয়েছে। আমরা সেটা মেরামত করেছি। এখন পানি জমে থাকায় চলাফেরার অসুবিধা হচ্ছে।

কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবু বলেন, বিষয়টি আমি একাধিকবার অবগত করেছি। হয়তো যে কোন সময় কাজ হয়ে যাবে।

উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসানের সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি।
কথা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-আলম সিদ্দিকী বলেন, বিষয়টি আমি এবং দেখেছি।পানি নিষ্কাশনের ব‍্যবস্থা না থাকায় এই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। দেখি যত দ্রুত সম্ভব কিভাবে নিরশন করা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


কিশোরগঞ্জে অল্প বৃষ্টিতেই জমছে পানি বাড়ছে জনদুর্ভোগ

আপডেট সময় : ০৬:১৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ জুন ২০২৩

মোঃ মারুফ হোসেন লিয়ন, স্টাফ রিপোর্টার: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে অল্প সময়ের বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে উপজেলার অধিকাংশ সড়ক। বৃষ্টি থেমে গেলেও সরছে না পানি। একদিকে অধিকাংশ সড়ক খানাখন্দ, অন্যদিকে বৃষ্টিতে হাটু পানি জমে থাকায় উপজেলাবাসীর চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

গতকাল রবিবার রাতে ও সোমবার সকালে বৃষ্টি হয় উপজেলাজুড়ে। পরে বৃষ্টি থামলেও বিভিন্ন জায়গায় বেশির ভাগ সড়কে হাঁটুপানি জমে। বৃষ্টিতে সাময়িক স্বস্তির বদলে ভোগান্তিই মুখ্য হয়ে ওঠে।থানা মোড় থেকে উপজেলা পরিষদ যেতে ভোগান্তিতে পোহাতে হচ্ছে যানবাহন ও পথচারীদের। ওয়ালটন প্লাজা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে রাস্তায় জমেছে পানি। স্থানীয়দের অভিযোগ রাস্তায় ড্রেন না থাকায় এমন দুর্ভোগের সৃষ্টি হচ্ছে। এলাকার বাসিন্দারা বলছেন, পানি নিষ্কাশনের কোন ব‍্যবস্থা না থাকায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। সম্প্রতি প্রধান ড্রেন পরিষ্কার করার কিছুদিনের মধ্যে আবার তা আগের অবস্থায় ফিরে গেছে। এ ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ড্রেনগুলো পরিষ্কার না করায় তা ভরাট হয়ে পানি নিষ্কাশনের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। চলাফেরায় ভোগান্তির সঙ্গে পচা, দুর্গন্ধযুক্ত পানি বাড়াচ্ছে রোগ বালাইয়ের শঙ্কা। বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হলেও পানি নিস্কাশনের এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে কিশোরীগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজের মূল ফটকের সামনে পানি জমে থাকতে দেখা যায়।এতে বিপাকে পড়েছে কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ উপজেলা হতে বড়ভিটা যাতায়াতকৃত যানবাহন সহ পথচারীরা।

কিশোরগঞ্জ সরকারী ডিগ্রী কলেজের অধ‍্যক্ষ আব্দুর রউফ বলেন, কলেজ যাতায়াতের রাস্তা কয়েকবার ভেঙ্গে গিয়েছে। আমরা সেটা মেরামত করেছি। এখন পানি জমে থাকায় চলাফেরার অসুবিধা হচ্ছে।

কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবু বলেন, বিষয়টি আমি একাধিকবার অবগত করেছি। হয়তো যে কোন সময় কাজ হয়ে যাবে।

উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসানের সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি।
কথা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-আলম সিদ্দিকী বলেন, বিষয়টি আমি এবং দেখেছি।পানি নিষ্কাশনের ব‍্যবস্থা না থাকায় এই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। দেখি যত দ্রুত সম্ভব কিভাবে নিরশন করা যায়।