সৈয়দপুর ১২:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চলমান বিক্ষোভ ঠেকাতে ফ্রান্সে কারফিউ জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:০১:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ জুন ২০২৩ ৩০ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ট্রাফিক পুলিশের গুলিতে উত্তর আফ্রিকার বংশোদ্ভূত ১৭ বছর বয়সী কিশোরের নিহতের ঘটনার জেরে চলমান বিক্ষোভ ঠেকাতে ফ্রান্সের একটি শহরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কারফিউ জারি করেছে। আগামী ৩ জুলাই পর্যন্ত প্যারিসের ইলে-ডে শহরে কারফিউ জারি থাকবে।

গত মঙ্গলবার ট্রাফিক পুলিশের গুলিতে নিহত হয় উত্তর আফ্রিকার বংশোদ্ভূত ১৭ বছর বয়সী কিশোর নেহাল এম। তার মৃত্যুর প্রতিবাদ জানিয়ে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভে নামেন। যেখানে ওই কিশোরকে গুলি করা হয় সেখানে প্রতিবাদ জানাতে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়েছে। তাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন কিশোরের মা মুনিয়া। যারা প্রতিবাদে নেমেছেন পুলিশ তাদের দমাতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করছে।

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিক্ষোভ ঠেকাতে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত ৪০ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যার মধ্যে প্যারিসে রয়েছে ৫ হাজার। বিক্ষোভ ঠেকাতে স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে বাস এবং ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আল জাজিরার সাংবাদিক নাতাসা বাটলার বলেন, বিক্ষোভকারীদের হটাতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ছে। কিন্তু পুলিশে ভুল উপায়ে বিক্ষোভ দমানোর চেষ্টা করছে।

নেহাল এম কে হত্যার প্রতিবাদে প্যারিস শহরে জড়ো হচ্ছেন তার প্রতিবেশীরা । প্রতিবেশীদের দাবি নেহাল এম হত্যার সঠিক বিচার করতে হবে।

সূত্র- আল-জাজিরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


চলমান বিক্ষোভ ঠেকাতে ফ্রান্সে কারফিউ জারি

আপডেট সময় : ০৪:০১:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ জুন ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ট্রাফিক পুলিশের গুলিতে উত্তর আফ্রিকার বংশোদ্ভূত ১৭ বছর বয়সী কিশোরের নিহতের ঘটনার জেরে চলমান বিক্ষোভ ঠেকাতে ফ্রান্সের একটি শহরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কারফিউ জারি করেছে। আগামী ৩ জুলাই পর্যন্ত প্যারিসের ইলে-ডে শহরে কারফিউ জারি থাকবে।

গত মঙ্গলবার ট্রাফিক পুলিশের গুলিতে নিহত হয় উত্তর আফ্রিকার বংশোদ্ভূত ১৭ বছর বয়সী কিশোর নেহাল এম। তার মৃত্যুর প্রতিবাদ জানিয়ে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভে নামেন। যেখানে ওই কিশোরকে গুলি করা হয় সেখানে প্রতিবাদ জানাতে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়েছে। তাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন কিশোরের মা মুনিয়া। যারা প্রতিবাদে নেমেছেন পুলিশ তাদের দমাতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করছে।

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিক্ষোভ ঠেকাতে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত ৪০ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যার মধ্যে প্যারিসে রয়েছে ৫ হাজার। বিক্ষোভ ঠেকাতে স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে বাস এবং ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আল জাজিরার সাংবাদিক নাতাসা বাটলার বলেন, বিক্ষোভকারীদের হটাতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছুঁড়ছে। কিন্তু পুলিশে ভুল উপায়ে বিক্ষোভ দমানোর চেষ্টা করছে।

নেহাল এম কে হত্যার প্রতিবাদে প্যারিস শহরে জড়ো হচ্ছেন তার প্রতিবেশীরা । প্রতিবেশীদের দাবি নেহাল এম হত্যার সঠিক বিচার করতে হবে।

সূত্র- আল-জাজিরা।