সৈয়দপুর ০৬:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ চাই দাবীতে মানববন্ধন

মো: আবুল কালাম আজাদ
  • আপডেট সময় : ০৮:১৬:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩১ মে ২০২৩ ৫৮ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটে দিবাকালীন ট্রেন উদ্বোধনের আগেই ট্রেনের নাম নিয়ে জনমনে সৃষ্টি হয়েছে অসন্তোষ। ‘চিলাহাটি এক্সপ্রেস’ পরিবর্তন করে ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ করার দাবীতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানবন্ধন করেছে জেলাবাসী।

বুধবার ১২ টার দিকে জেলাবাসীর ব্যানারে বিভিন্ন পেশাজীবীর মানুষ এই মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা, রাসেল আমিন স্বপন নের্তৃত্বে দেন। এসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ অংশগ্রহণ করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জেলাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে ২০২৪ সালের মাঝামাঝিতে ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটে দিবাকালীন ট্রেন চালুর বিষয়টি জানান রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। কিন্তু তার আগেই আগামী ৪ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটের দিবাকালীন ট্রেন। যার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যনাদ জানান বক্তারা।

বক্তারা আরও বলেন, ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ নাম প্রস্তাব রেখে আগামী ৪ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের দিনক্ষন স্থির করে রেলওয়ে মন্ত্রণালয়। গত ২৯ মে বাংলাদেশ রেলওয়ে (পশ্চিম) অঞ্চলের চীফ অপারেটিং সুপারেটেডেন্ট মোহাম্মদ আহসান উল্লা সাক্ষরিত পত্রে নতুন ট্রেনের নাম ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ প্রস্তাব করা হয়। কিন্তু ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ৩০ মে রেলপথ মন্ত্রণালয় ট্রেনের নাম ‘চিলাহাটি এক্সপ্রেস’ নির্ধারণ করে রেলওয়ে দপ্তরকে চিঠি দেয়। যাতে জেলাবাসী আশাহত হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় আন্ত:নগর ট্রেনেট নাম লালমনি এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস থাকলেও ষড়যন্ত্র মূলকভাবে জেলার নতুন ট্রেনের নাম চিলাহাটি এক্সপ্রেস প্রস্তাব করা হয়েছে। অচিরেই নাম পরিবর্তন করে ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মানববন্ধন শেষে জেলার গণমানুষের স্বাক্ষরিত স্মারক লিপি জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ এর হাতে তুলে দেন মানববন্ধনকারীরা।

জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ স্মারক লিপি গ্রহন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দপ্তরে পৌছানোর আশ্বাস প্রদান করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ চাই দাবীতে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৮:১৬:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩১ মে ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটে দিবাকালীন ট্রেন উদ্বোধনের আগেই ট্রেনের নাম নিয়ে জনমনে সৃষ্টি হয়েছে অসন্তোষ। ‘চিলাহাটি এক্সপ্রেস’ পরিবর্তন করে ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ করার দাবীতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানবন্ধন করেছে জেলাবাসী।

বুধবার ১২ টার দিকে জেলাবাসীর ব্যানারে বিভিন্ন পেশাজীবীর মানুষ এই মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা, রাসেল আমিন স্বপন নের্তৃত্বে দেন। এসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ অংশগ্রহণ করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জেলাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে ২০২৪ সালের মাঝামাঝিতে ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটে দিবাকালীন ট্রেন চালুর বিষয়টি জানান রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। কিন্তু তার আগেই আগামী ৪ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকা রুটের দিবাকালীন ট্রেন। যার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যনাদ জানান বক্তারা।

বক্তারা আরও বলেন, ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ নাম প্রস্তাব রেখে আগামী ৪ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের দিনক্ষন স্থির করে রেলওয়ে মন্ত্রণালয়। গত ২৯ মে বাংলাদেশ রেলওয়ে (পশ্চিম) অঞ্চলের চীফ অপারেটিং সুপারেটেডেন্ট মোহাম্মদ আহসান উল্লা সাক্ষরিত পত্রে নতুন ট্রেনের নাম ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ প্রস্তাব করা হয়। কিন্তু ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ৩০ মে রেলপথ মন্ত্রণালয় ট্রেনের নাম ‘চিলাহাটি এক্সপ্রেস’ নির্ধারণ করে রেলওয়ে দপ্তরকে চিঠি দেয়। যাতে জেলাবাসী আশাহত হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় আন্ত:নগর ট্রেনেট নাম লালমনি এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস থাকলেও ষড়যন্ত্র মূলকভাবে জেলার নতুন ট্রেনের নাম চিলাহাটি এক্সপ্রেস প্রস্তাব করা হয়েছে। অচিরেই নাম পরিবর্তন করে ‘নীলফামারী এক্সপ্রেস’ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মানববন্ধন শেষে জেলার গণমানুষের স্বাক্ষরিত স্মারক লিপি জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ এর হাতে তুলে দেন মানববন্ধনকারীরা।

জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ স্মারক লিপি গ্রহন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দপ্তরে পৌছানোর আশ্বাস প্রদান করে।