সৈয়দপুর ০৭:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে জমে উঠেছে ইসলামি বইমেলা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৪৯:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৮ অক্টোবর ২০২২ ২৮ বার পড়া হয়েছে
চোখ২৪.নেট অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহে চলছে ৯ দিনব্যাপী ইসলামি বইমেলা। মাহে রবিউল আওয়াল উপলক্ষে নগরীর টাউন হল প্রাঙ্গণে বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) থেকে শুরু হওয়া এ বইমেলা চলবে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত।

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় ও ইত্তেফাকুল উলামা বৃহত্তর মোমেনশাহীর পৃষ্ঠপোষকতায় এবার বৃহৎ পরিসরে এ মেলার আয়োজন করেছে সীরাতকেন্দ্র।

মেলার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকেলে মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, ইসলামি বইমেলা বেশ জমে উঠেছে। ক্রেতা-দর্শনার্থীরা মেলা প্রাঙ্গণে এসে তাদের পছন্দের বই ঘুরে ঘুরে দেখছেন, পড়ছেন ও কিনছেন।

ক্রেতারা জানান, মেলায় ইসলামি বইয়ের ব্যাপক সমাহার রয়েছে। সেখান থেকে পছন্দের লেখকের বইসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরির বই স্টলগুলো ঘুরে কিনতে পারছেন।

বিক্রেতারা বলছেন, মেলার প্রথম দিন থেকেই পাঠকের পদচারণায় মুখর এই টাউন হল প্রাঙ্গণ। আমরাও পাঠকের চাহিদা পূরণ করতে পারছি। মেলায় এসে কেউ খালি হাতে ফেরত যান না, অন্তত একটি বই হলেও তারা কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। আগামী দিনগুলোতে পাঠকের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আমরা আশাবাদী।

আয়োজকরা জানান, এ মেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন, মাকতাবাতুল আযহার, মাকতাবাতুল ইসলাম, রাহনুমা প্রকাশনী, মদীনা পাবলিকেশন্স, মাকতাবাতুল হাসানসহ দেশের প্রথম সারির অর্ধশতাধিক প্রকাশনীর ৪৫টি স্টল রয়েছে। স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা শিক্ষার্থী এবং সব ধরনের পাঠকদের খোরাক রয়েছে এই আয়োজনে। বাংলা, ইংরেজি ও আরবি ভাষার বই রয়েছে। ইসলামিক উপন্যাস, ইতিহাস, গল্প, প্রবন্ধ, হুকুম-আহকাম, মাসয়ালা-মাসায়েলসহ সব ধরনের ইসলামিক বই আছে মেলায়। এছাড়াও মাদ্রাসার দারস কিতাব, আরবি শরাহ ও তাফসিরগ্রন্থও পাওয়া যাচ্ছে। সকল বইয়ে মেলা উপলক্ষে রয়েছে বিশেষ ছাড়।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকছে মেলার কার্যক্রম। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ‘নারীপ্রহর’ নামে নারীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।

আয়োজক প্রতিষ্ঠান সীরাতকেন্দ্রের পরিচালক মাওলানা আমীর ইবনে আহমদ বলেন, ময়মনসিংহে ইসলামি বই মেলার আয়োজনটি আমরা ২০০৭ সাল থেকে করে আসছি। এর পেছনে আমাদের মূল উদ্দেশ্য হলো বিগত ৫০ বছরে বাংলাদেশে ইসলামি প্রকাশনার যে সমৃদ্ধি ও সৃজনশীলতা এসেছে, দেশের মানুষকে এর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া। একজন লেখক তার মেধা ও শ্রম ব্যয় করে একটি বই রচনা করেন এবং প্রকাশকরা নিজ নিজ অর্থ খরচ করে সেটি প্রকাশ করে থাকেন। লেখক-প্রকাশকের এই সমন্বিত প্রচেষ্টাকে পাঠকের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়াও এই মেলার অন্যতম উদ্দেশ্য।

তিনি আরও বলেন, সুস্থ বিনোদন, ইসলামের সমৃদ্ধ ইতিহাস-ঐতিহ্য, সাহিত্য এবং বিভিন্ন প্রকাশনাকে মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্যই আমরা এই আয়োজন করে থাকি। এবারের এই বইমেলাটি অন্যবারের চেয়ে একটু ব্যতিক্রম। বিগত বছরগুলোতে ছোট পরিসরে বইমেলাগুলো হয়েছে কিন্তু এবার বেশ বড়সড় এবং শহরের প্রাণকেন্দ্রে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এ বইমেলার আয়োজন করা হয়েছে। আমরা আশাবাদী স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এ সুযোগটি কাজে লাগাবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মুফতি মাহবুবুল্লাহ কাসেমী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাওলানা ওয়ালিউল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য দেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম, বৃহত্তর মোমেনশাহী ইত্তেফাকুল উলামা’র সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, মুফতি মুহিবুল্লাহ, কবি সাইফ সিরাজ প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য


ময়মনসিংহে জমে উঠেছে ইসলামি বইমেলা

আপডেট সময় : ০২:৪৯:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৮ অক্টোবর ২০২২

ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহে চলছে ৯ দিনব্যাপী ইসলামি বইমেলা। মাহে রবিউল আওয়াল উপলক্ষে নগরীর টাউন হল প্রাঙ্গণে বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) থেকে শুরু হওয়া এ বইমেলা চলবে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত।

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় ও ইত্তেফাকুল উলামা বৃহত্তর মোমেনশাহীর পৃষ্ঠপোষকতায় এবার বৃহৎ পরিসরে এ মেলার আয়োজন করেছে সীরাতকেন্দ্র।

মেলার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকেলে মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, ইসলামি বইমেলা বেশ জমে উঠেছে। ক্রেতা-দর্শনার্থীরা মেলা প্রাঙ্গণে এসে তাদের পছন্দের বই ঘুরে ঘুরে দেখছেন, পড়ছেন ও কিনছেন।

ক্রেতারা জানান, মেলায় ইসলামি বইয়ের ব্যাপক সমাহার রয়েছে। সেখান থেকে পছন্দের লেখকের বইসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরির বই স্টলগুলো ঘুরে কিনতে পারছেন।

বিক্রেতারা বলছেন, মেলার প্রথম দিন থেকেই পাঠকের পদচারণায় মুখর এই টাউন হল প্রাঙ্গণ। আমরাও পাঠকের চাহিদা পূরণ করতে পারছি। মেলায় এসে কেউ খালি হাতে ফেরত যান না, অন্তত একটি বই হলেও তারা কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। আগামী দিনগুলোতে পাঠকের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আমরা আশাবাদী।

আয়োজকরা জানান, এ মেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন, মাকতাবাতুল আযহার, মাকতাবাতুল ইসলাম, রাহনুমা প্রকাশনী, মদীনা পাবলিকেশন্স, মাকতাবাতুল হাসানসহ দেশের প্রথম সারির অর্ধশতাধিক প্রকাশনীর ৪৫টি স্টল রয়েছে। স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা শিক্ষার্থী এবং সব ধরনের পাঠকদের খোরাক রয়েছে এই আয়োজনে। বাংলা, ইংরেজি ও আরবি ভাষার বই রয়েছে। ইসলামিক উপন্যাস, ইতিহাস, গল্প, প্রবন্ধ, হুকুম-আহকাম, মাসয়ালা-মাসায়েলসহ সব ধরনের ইসলামিক বই আছে মেলায়। এছাড়াও মাদ্রাসার দারস কিতাব, আরবি শরাহ ও তাফসিরগ্রন্থও পাওয়া যাচ্ছে। সকল বইয়ে মেলা উপলক্ষে রয়েছে বিশেষ ছাড়।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকছে মেলার কার্যক্রম। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ‘নারীপ্রহর’ নামে নারীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।

আয়োজক প্রতিষ্ঠান সীরাতকেন্দ্রের পরিচালক মাওলানা আমীর ইবনে আহমদ বলেন, ময়মনসিংহে ইসলামি বই মেলার আয়োজনটি আমরা ২০০৭ সাল থেকে করে আসছি। এর পেছনে আমাদের মূল উদ্দেশ্য হলো বিগত ৫০ বছরে বাংলাদেশে ইসলামি প্রকাশনার যে সমৃদ্ধি ও সৃজনশীলতা এসেছে, দেশের মানুষকে এর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া। একজন লেখক তার মেধা ও শ্রম ব্যয় করে একটি বই রচনা করেন এবং প্রকাশকরা নিজ নিজ অর্থ খরচ করে সেটি প্রকাশ করে থাকেন। লেখক-প্রকাশকের এই সমন্বিত প্রচেষ্টাকে পাঠকের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়াও এই মেলার অন্যতম উদ্দেশ্য।

তিনি আরও বলেন, সুস্থ বিনোদন, ইসলামের সমৃদ্ধ ইতিহাস-ঐতিহ্য, সাহিত্য এবং বিভিন্ন প্রকাশনাকে মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্যই আমরা এই আয়োজন করে থাকি। এবারের এই বইমেলাটি অন্যবারের চেয়ে একটু ব্যতিক্রম। বিগত বছরগুলোতে ছোট পরিসরে বইমেলাগুলো হয়েছে কিন্তু এবার বেশ বড়সড় এবং শহরের প্রাণকেন্দ্রে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এ বইমেলার আয়োজন করা হয়েছে। আমরা আশাবাদী স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এ সুযোগটি কাজে লাগাবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মুফতি মাহবুবুল্লাহ কাসেমী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাওলানা ওয়ালিউল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য দেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম, বৃহত্তর মোমেনশাহী ইত্তেফাকুল উলামা’র সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, মুফতি মুহিবুল্লাহ, কবি সাইফ সিরাজ প্রমুখ।